একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ | বিরতি স্টেশন ও ভাড়ার তালিকা

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশের ঢাকা স্টেশন থেকে পঞ্চগড় স্টেশন পর্যন্ত চলাচলকারী একটি আন্তঃনগর ট্রেন। আজকে আমরা জেনে নেব একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ ও ভাড়ার তালিকা। সস্তায় এবং আরামদায়ক ভ্রমণ সুবিধা উপভোগ করতে সাধারণ মানুষ ট্রেন যাত্রাকেই বেছে নেন। তাই যেকোনো ট্রেনে চাপার আগে অবশ্যই ট্রেনটির সময়সূচী এবং ভাড়া সম্বন্ধে সঠিক তথ্য থাকা দরকার, যা আজকে আমরা আপনাদের প্রদান করব।

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশের দ্রুতগামী বিলাসবহুল ট্রেন গুলির মধ্যে একটি। ট্রেনটি তার প্রথম যাত্রাপথ শুরু করে ১৯৮৬ সালের ২৪ জুন দিনাজপুর থেকে কমলাপুর পর্যন্ত এরপর ট্রেনটির দূরত্ব বাড়িয়ে পঞ্চগড় স্টেশন পর্যন্ত করা হয়। একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটির মোট ১২টি বগি আছে এবং এই ১২ টি বগিতে প্রায় ১২০০ জন যাত্রী নিয়মিত পরিবহন করতে পারে।

একতা এক্সপ্রেস ট্রেন

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাজধানী ঢাকা কমলাপুর থেকে পঞ্চগড় স্টেশন পর্যন্ত এবং পঞ্চগড় রেলস্টেশন থেকে কমলাপুর স্টেশন পর্যন্ত নিয়মিত যাত্রীদের পরিবহনের সুবিধা দিয়ে আসছে। একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি এই রুটে চলাচলকারী একটি দ্রুতগামী আন্তঃনগর ট্রেন, চলুন দেখে নিন একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩।

স্টেশন নাম ছাড়ার সময়পৌঁছানোর সময়ছুটির দিন
ঢাকা টু পঞ্চগড়বেলা ১০:১০ সন্ধ্যা ০৭:০০নেই
পঞ্চগড় টু ঢাকারাত্রি ১১:০৪ সকাল ০৮:১০নেই
একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী
সকল ট্রেনের সময়সূচী জানতে এখানে ক্লিক করুন

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ১৯৬৮ সালে প্রথম যাত্রীদের ভ্রমণ পরিষেবা চালু করে, ঢাকা থেকে কমলাপুর পর্যন্ত রেলপথের দূরত্ব ৫২৬ কিলোমিটার এই যাত্রাপথে অতিক্রম করতে সময় লাগে প্রায় ১১ ঘন্টা। ১১ ঘন্টার যাত্রাপথে অনেকগুলি স্টেশনে ট্রেনটি বিরতি নেয় যাতে করে অন্যান্য যাত্রীরা টেনে উঠতে পারে এবং নামতে পারে। আমরা এই বিরতি স্টেশন গুলোর একটি তালিকা সুন্দরভাবে আপনাদের সামনে তুলে ধরেছি।

বিরতি স্টেশন নামঢাকা থেকে (৭০৫)দিনাজপুর থেকে (৭০৬)
বিমান বন্দর১০ঃ৩৭০৭ঃ২৫
জয়দেবপুর১১ঃ০৫০৬ঃ৫০
টাঙ্গাইল১২ঃ০৫০৫ঃ৪৬
বি-বি-পৃর্ব১২ঃ২৭০৫ঃ২৪
শহীদ এম মনসুর আলী১৩ঃ০৪——-
ঈশ্বরদী১৪ঃ২০——-
নাটোর১৫ঃ১০০৩ঃ১২
সান্তাহার১৬ঃ০০০২ঃ১০
আক্কেলপুর১৬ঃ২৫০১ঃ৩৫
জয়পুরহাট১৬ঃ৫৩০১ঃ১৮
পাঁচবিবি১৭ঃ০৬০১ঃ০৬
বিরামপুর১৭ঃ৩৬০০ঃ৪২
ফুলবাড়িয়া১৭ঃ৫০০০ঃ২৮
পার্বতীপুর১৮ঃ১৫২৩ঃ৫০
চিরিরবন্দর১৮ঃ৪০২৩ঃ২৯
দিনাজপুর১৯ঃ০০২৩ঃ০৪
সেতাবগঞ্জ১৯ঃ৩৫২২ঃ৩২
পীরগঞ্জ১৯ঃ৫১২২ঃ১৬
ঠাকুরগাঁও২০ঃ১৫২১ঃ৫১
রুহিয়া২০ঃ৩৩২১ঃ৩৪
কিস্মত২০ঃ৪০২১ঃ২৫

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া তালিকা

ট্রেনে ভ্রমণ অন্যান্য পরিবহন ব্যবস্থাগুলির মধ্যে সবথেকে সস্তা এবং সুরক্ষিত। তাই বহু মানুষ কাজের উদ্দেশ্যে অথবা ভ্রমণের উদ্দেশ্যে ট্রেনে যাতায়াত করে। যে কোনো ট্রেনে চাপার আগে অবশ্যই আপনাদের সেই ট্রেনটির ভাড়া সম্বন্ধে জেনে রাখা উচিত, যাতে করে টিকিট কাউন্টারে আপনাদের কোনো রকম অসুবিধা না হয়।

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি যেহেতু একটি আধুনিক ট্রেন তাই ট্রেনটির মধ্যে অনেকগুলি শ্রেণিবিন্যাস আছে এবং এই শ্রেণীবিন্যাসের ভিত্তি করে ট্রেনের টিকিটের ভাড়া গুলি বিভিন্ন রকম হয়। আর সেই ভাড়ার তালিকা আমরা আপনাদের তালিকার মাধ্যমে প্রকাশ করেছি।

স্টেশনের নামশোভন চেয়ারশোভন চেয়ারপ্রথম বার্থএসি বার্থ
দিনাজপুর৩৬০ টাকা৪৬০ টাকা৮৫৫ টাকা১২৮৫ টাকা
ফুলবাড়ি৩৩০ টাকা৩৯৫ টাকা৭৮৫ টাকা১১৭৫ টাকা
বিরামপুর৩২০ টাকা৩৮৫ টাকা৭৬৫ টাকা১১৫০ টাকা
পাঁচবিবি৩০৫ টাকা৩৬৫ টাকা৭৬৫ টাকা১১৯৫ টাকা
জয়পুরহাট৩০০ টাকা৩৬০ টাকা৭১৫ টাকা১০৭০ টাকা
আক্কেলপুর২৯০ টাকা৩৪৫ টাকা৬৯০ টাকা১০৩৫ টাকা
সান্তাহার২৭৫ টাকা৩৩০ টাকা৬৬০ টাকা৯৯০ টাকা
বি-বি-পৃর্ব১০৫ টাকা১২৫ টাকা২৫০ টাকা৩৭৫ টাকা
টাঙ্গাইল৯০ টাকা১০৫ টাকা২১০ টাকা৩১৫ টাকা
সিলেট টু ঢাকা ট্রেনের সময়সূচী

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সংক্ষিপ্ত বিবরণ

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটির মধ্যে ১২ টি বগি আছে, যেখানে একটি এসি চেয়ার, একটি স্লিপার এসি, একটি পাওয়ার কার, দুটি খাওয়ার গাড়ি এবং ৭ টি শোভন চেয়ার। এত বড় ট্রেনটিকে চালনা করার জন্য ৬৬০০ সিরিজের লোকোমোটিভ ব্যবহার করা হয়।

ট্রেনটির মধ্যে ঘুমের বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে এবং খাবারের সুবিধা আছে এছাড়া ট্রেনটিতে বিলাসের জন্য এসির ব্যবস্থা রয়েছে। ট্রেনটি তার সর্বোচ্চ গতি ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় যেতে পারে।

রাজশাহী থেকে ঢাকা ট্রেনের সময়সূচী

ট্রেনে চাপার নিয়ম

ট্রেনে চাপার আগে অবশ্যই আমাদের ট্রেনের নিয়ম কানুন গুলি জেনে রাখতে হয়। সেই নিয়মগুলি কি তা জেনে নিন..

  • প্রথমে আপনাদের বলে রাখি টিকিট ছাড়া ট্রেনে ভ্রমণ করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
  • আপনার ট্রেনের টিকিট টি নিজের কাছে যত্ন সহকারে রাখুন যতক্ষণ পর্যন্ত স্টেশন থেকে বেরিয়ে না আসছেন।
  • আপনার মালপত্র আপনার নিজের দায়িত্বেই রাখুন।
  • অযথা ট্রেনের স্টপচেইন টানবেন না।
  • আপনার পরিচিত ব্যক্তি ছাড়া অন্য ব্যক্তির দেওয়া কোনো খাবার খাবেন না।
  • ট্রেন থেকে অযথা উঠানামা করবেন না।
  • ট্রেনের মধ্যে জ্বলনশীল বস্তু নিয়ে উঠবেন না।

ঢাকা স্টেশন থেকে পঞ্চগড় স্টেশন পর্যন্ত দুরুত্ব কত কিমি ?

ঢাকা স্টেশন থেকে পঞ্চগড় স্টেশন পর্যন্ত রেলপথের দুরুত্ব ৫২৬ কিলোমিটার বা ৩২৭ মাইল।

ঢাকা থেকে পঞ্চগড় পর্যন্ত একতা এক্সপ্রেসের যেতে কত সময় লাগে ?

ঢাকা স্টেশন থেকে পঞ্চগড় স্টেশন পর্যন্ত ট্রেনটির যেতে প্রায় ১১ ঘন্টা সময় লাগে।

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি কবে প্রথম চালু হয় ?

একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রথম ১৯৮৬ সালে ২৪ জুন মাসে যাত্রা শুরু করে।

ঢাকা থেকে পঞ্চগড় পর্যন্ত মোট কয়টি স্টেশন আছে ?

ঢাকা থেকে পঞ্চগড় পর্যন্ত মোট ১৯ টি স্টেশন আছে।

উপসংহার

আমরা আপনাদের যাত্রার সুবিধার জন্য একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী নিয়ে বিশেষ প্রবন্ধ আপনাদের সামনে তুলে ধরেছি। আশা করি আপনারা এই প্রবন্ধের মাধ্যমে আপনাদের প্রয়োজনীয় তথ্যগুলি পেয়েছেন যদি কোনো অংশে আপনাদের সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমরা শীঘ্রই উত্তর দিয়ে দেব।

প্রবন্ধটি আপনাদের ভালো লেগে থাকলে ভ্রমণ প্রিয় মানুষদের সাথে শেয়ার করতে পারেন, যাতে করে তারাও ট্রেনে ভ্রমণের সুবিধা উপভোগ করতে পারে। সময়ে ট্রেনটি ধরতে আগে থেকে অনলাইনে টিকিট বুকিং করে রাখতে পারেন যাতে করে টিকিট কাউন্টারে আপনাদের সময় নষ্ট করতে না হয়। আমাদের পক্ষ থেকে আপনাদের যাত্রার শুভকামনা রইল।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment