West Bengal Student internship Scheme আবেদন শুরু হয়ে গেছে, বিস্তারিত দেখে নিন

West Bengal Student internship Scheme : রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্র সরকার উভয় মিলেই ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের সুবিধা প্রদান করেন। এই সুবিধা গুলি একটি বিশেষ স্কিমের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়, এর ফলস্বরূপ ছাত্রছাত্রীরা এই প্রকল্পের মাধ্যমে অনেক সুবিধা ভোগ করতে পারেন। এই ধরনের সুবিধা গুলির মধ্যে শিক্ষামূলক ঋণ, উন্নয়ন দক্ষতা কর্মসূচি এবং বৃত্তি ইত্যাদি থাকে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার ওয়েস্ট বেঙ্গল ছাত্র ইন্টার্নশিপ নামে একটি প্রকল্প চালু করেছে এই স্কিমটির মূল উদ্দেশ্য হলো শিক্ষার্থীদের ইন্টারশিপ দেওয়া। আজকে এই প্রবন্ধের মাধ্যমে West Bengal Student internship Scheme এর সুবিধা, উদ্দেশ্য, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, আবেদন পদ্ধতি, ইত্যাদি ভালোভাবে আলোচনা করা হয়েছে।

স্কিমটির সংক্ষিপ্ত বিবরণ

স্কিমের নাম West Bengal Student internship Scheme
উদ্দেশ্য ইন্টার্নশিপ দেওয়া
উপভোগকারী পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রী
কার দ্বারা চালু হয়েছেপশ্চিমবঙ্গ সরকার
কবে চালু হয়েছে ৩১ শে জানুয়ারি ২০২২
আবেদন পদ্ধতিঅনলাইন
সরকারি ওয়েবসাইটwww.wbgovtscheme.gov.in

পশ্চিমবঙ্গ ছাত্র ইন্টার্নশিপ স্কিম (West Bengal Student internship Scheme 2023)

আপনাদের অনেকেই হয়তো জানেন পশ্চিমবঙ্গ সরকার পশ্চিমবঙ্গের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ইন্টার্নশিপ স্কিম চালু করেছে। এই স্কিমের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রীদের সরকারি বিভিন্ন বিভাগে ইন্টার্নশিপ এর সুবিধা দেওয়া হবে। ৩১ শে জানুয়ারি ২০২২ সালে এই স্কিমটি প্রথম চালু করা হয়েছিল, এই স্কিমের অধীনে যে সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীরা ইন্টার্নশিপ এর সুবিধা পাবেন তাদেরকে প্রত্যেক মাসে ৫০০০ টাকা করে দেয়া হবে। যারা গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করেছেন সেই সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে ৬০০০ ছাত্র-ছাত্রীকে এই সুবিধা দেয়া হবে। এক বছরের জন্য এই প্রকল্পটি কার্যকর করা হবে। জেলা মহকুমা ও ব্লকের সরকারি অফিস গুলিতে ইন্টার্নস দের পোস্ট করা হবে। উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের কাছাকাছি এলাকায় পোস্ট করা হবে এবং ইন্টার্নশিপ সফলভাবে শেষ হওয়ার পরে এটিকে নিয়ে পর্যালোচনা করা হবে।

পশ্চিমবঙ্গ ছাত্র ইন্টার্নশিপ স্কিমের উদ্দেশ্য

Student internship Scheme প্রধান উদ্দেশ্য হল ছাত্র-ছাত্রীদের ইন্টার্নশিপ প্রদান করা যাতে করে তাদের মধ্যে একটি সাধারণ ধারণা জন্মায় যে কিভাবে সরকারি বিভাগগুলি কাজ করে। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো স্কিমটির মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের চাকরি পেতে অনেকটা সাহায্য করবে। কারণ এই ট্রেনিং শেষ হবার পর একটি শংসাপত্র রাঙ্কিং এবং গ্রেডিং দেয়া হবে। এই স্কিমের অধীনে প্রতিবছর রাজ্য সরকার ৬০০০ ছাত্র-ছাত্রীকে ইন্টার্নশিপ প্রদান করবে এবং প্রতি মাসে ৫০০০ হাজার টাকা করে দেয়া হবে, যাতে করে পরবর্তী সময়ে তাদের পারফরমেন্স আরো ভালো হয়।

প্রতিবছর ৬০০০ হাজার ইন্টার্নস এই সুবিধা পাবেন

প্রত্যেক বছর ৬০০০ ইন্টার্নস ছাত্র ছাত্রীদের সরকারি বিভাগে পোস্ট দেয়া হবে এবং সেখান থেকে তারা সরকারি আধিকারিকরা কিভাবে কাজ করে তা শিখবেন। এই প্রকল্পের বিষয়ে আধিকারিকদের সাথে শিক্ষা বিভাগের একটি বিশেষ সমন্বয় করার কথা বলা হয়েছে। নির্বাচন করা শিক্ষার্থীদের রাজ্য সরকারের বিভিন্ন অফিসে এবং সরকারি উদ্যোগে যুক্ত করা হবে। ইন্টার্নশিপ সফলভাবে হওয়ার পর ছাত্র ছাত্রীদের রাঙ্কিং এবং গ্রিডিং এর বিশেষ সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে। এই ইন্টার্নশিপ এর মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীরা পড়াশোনা এবং চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক উপকার পাবেন।

স্কিমের সুবিধা

  • পশ্চিমবঙ্গ সরকার ছাত্রছাত্রীদের জন্য ইন্টার্নশিপ স্কিম চালু করেছে।
  • এই সিমটির মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সরকারি বিভাগ গুলিতে ইন্টার্নশিপ দেয়া হবে।
  • স্কিমটি ৩১ শে জানুয়ারি ২০২২ এ চালু করা হয়েছে।
  • এই স্কিমের মাধ্যমে উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের ৫০০০ টাকা করে প্রত্যেক মাসে দেওয়া হবে।
  • রাজ্য সরকার মোট ৬০০০ ইন্টার্নসদের সুবিধা দেবে, যারা গ্রাজুয়েশন সম্পূর্ণ করেছে তাদের জন্য।
  • এক বছরের জন্য এই প্রকল্পটি কার্যকর করা হবে।
  • উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের জেলা এবং ব্লকের সরকারি অফিসগুলিতে পোস্টিং দেওয়া হবে।
  • শিক্ষার্থীরা তাদের কাছাকাছি এলাকায় পোস্টিং পাবে।
  • এই ইন্টার্নশিপ শেষ হবার পরে একটি বিশেষ আলোচনা করা হবে।
  • যাদের বয়স ৪০ বছরের কম শুধুমাত্র তারাই এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন।
  • যে সমস্ত শিক্ষার্থীরা তাদের আইটিআই, পলিটেকনিক এই ধরনের কোর্স শেষ করেছেন তারা এই স্কিমে আবেদন করতে পারবেন। তবে কোর্সগুলিতে ন্যূনতম ৬০% নাম্বার থাকতে হবে।
  • ছাত্র-ছাত্রীদের রাজ্য সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি এবং প্রকল্পের সাথে যুক্ত করা হবে যাতে করে তারা সামাজিক কাজ গুলি শিখতে পারেন।
  • এদের মধ্যে যাদের পারফরম্যান্স ভালো হবে তারা সবাই এগিয়ে যেতে পারবেন।
  • এই প্রকল্পটি আবেদন করার জন্য অনলাইনে ফরম ফিলাপ করতে হবে।
  • মুখ্য সচিবের নেতৃত্বে এবং নির্বাচন বোর্ড দ্বারা আবেদনটি সম্পূর্ণ করা হবে।

স্কিমটির জন্য যোগ্যতা

  1. আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের একজন স্থায়ী বাসনা হতে হবে।
  2. আবেদনকারীর বয়স ৪০ বছরের মধ্যে হতে হবে।
  3. আবেদনকারীর সর্বনিম্ন ৬০% নাম্বার থাকতে হবে স্নাতক ডিগ্রিতে।
  4. আইটিআই, পলিটেকনিক এই সমমানের কোর্সের ছাত্র ও ছাত্রীরা আবেদন করতে পারবেন।

স্কিমটির জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • আধার কার্ড।
  • স্থায়ী বাসিন্দার সার্টিফিকেট।
  • কোয়ালিফিকেশন সার্টিফিকেট।
  • বয়সের প্রমাণপত্র।
  • ইনকাম সার্টিফিকেট।
  • রেশন কার্ড।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • ইমেল আইডি।
  • মোবাইল নম্বর।

স্কিমটি কিভাবে আবেদন করবেন

West Bengal Student internship Scheme পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার এই স্কিমটি চালু করেছেন তবে এখনো পর্যন্ত অফিসিয়াল ওয়েবসাইট সম্পর্কে সেই রকম ভাবে কোন কিছু পাওয়া যায়নি। যেখান থেকে আপনি এই স্কিমটির জন্য আবেদন করতে পারবেন। আমরা খুব শীঘ্রই অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি পোস্টের মধ্যে যোগ করে দেব।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment