Yuvashree New List নাম থাকলেই প্রতিমাসে ১৫০০ টাকা পাবেন, লিস্টে নাম আছে নাকি দেখে নিন

Yuvashree New List : পশ্চিমবঙ্গের চাকরির অবস্থা খুবই খারাপ, সরকারি চাকরি তো ছেড়েই দিন প্রাইভেট সংস্থা গুলিও খুব বেশি আগ্রহ দেখাচ্ছে না। চাকরি মিললেও বেতন খুবই কম, রাজনৈতিক ও বিভিন্ন দুর্নীতির কারণে সরকারি ক্ষেত্র গুলিতে নিয়োগ অনেকদিন বন্ধ হয়ে আছে। তার কারণে দিন প্রতিদিন বেকার সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে হতাশাও বাড়ছে। তাই রাজ্য সরকার বেকারদের একটু স্বস্তি দিতে প্রত্যেক মাসে ১৫০০ টাকা করে দিচ্ছে, তবে রাজ্যের বেকাররা বাড়িতে বসেই যুবশ্রী প্রকল্প এর টাকা পেয়ে যাবেন।

ভালো করে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে বাংলার প্রত্যেক বাড়িতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পাস ছেলেমেয়েরা বেকার হয়ে বসে আছে। অবস্থা এমন হয়ে দাঁড়িয়েছে যে বেঁচে থাকার লড়াইয়ের জন্য উচ্চশিক্ষিত বেকার ছেলে মেয়েদের ডোমের চাকরির জন্য আবেদন করতে হচ্ছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি আটকানোর তাগিদে রাজ্য সরকার বেকারদের জন্য যুবশ্রী প্রকল্প চালু করেছে, যদিও এটা কোনো সঠিক সমাধান নয়। তবে এই প্রকল্পে আবেদন করলেই যুবক-যুবতীরা মাসে মাসে ১,৫০০ টাকা করে পাবেন।

Yuvashree New List

সর্বপ্রথম ২০১৩ সালে যুবশ্রী প্রকল্পটি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের শিক্ষিত বেকারদের কথা ভেবে চালু করা হয়। এই প্রকল্পের অন্তর্গত প্রত্যেককে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার মাসিক ১৫০০ টাকা করে দেয়। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক, কি পদ্ধতিতে যুবশ্রী প্রকল্পটিতে নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন।

কারা যুবশ্রী প্রকল্পের ১৫০০ টাকা পাবেন?

  • প্রকল্পে আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  • আবেদনকারীকে অবশ্যই মাধ্যমিক পাস হতে হবে, তবে উচ্চশিক্ষিত হলেও কোনো অসুবিধা নেই।
  • আবেদনকারী যুবক-যুবতীদের বয়স ১৮ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • আবেদনকারী যুবক বা যুবতীকে অবশ্যই বেকার হতে হবে। কোন‌ও সরকারি বা বেসরকারি কাজ করলে চলবে না।

যুবশ্রী প্রকল্পে আবেদন করার জন্য যে সমস্ত নথির প্রয়োজন

যুবশ্রী প্রকল্পে আবেদনের জন্য আপনার কাছে অবশ্যই থাকতে হবে –

  • আধার কার্ড।
  • ভোটার আইডি।
  • মাধ্যমিকের মার্কশিট ও অ্যাডমিট কার্ড।
  • যেকোনও রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট।
  • আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজ ফটো।
  • কাস্ট সার্টিফিকেট থাকলে তার জেরক্স।

অনলাইনে যুবশ্রী প্রকল্প আবেদন করার পদ্ধতি ?

যুবশ্রী প্রকল্পটি মূলত অনলাইনে আবেদন করতে হয়, কীভাবে করবেন ভালোভাবে দেখে নিন

  • সর্বপ্রথম আপনার সমস্ত প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট গুলি স্ক্যান করুন, সাইজ 20KB থেকে 100KB এর মধ্যে pdf আকারে আপনার ল্যাপটপ বা ডেস্কটপে সেভ করে রাখুন।
  • এই যুবশ্রী প্রকল্পে আবেদনের জন্য https://employmentbankwb.gov.in/ -এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
  • রেজিস্ট্রেশন করে এখানে ঢোকার পর New Enrollment Job Seeker অপশনে ক্লিক করতে হবে। এরপর Accept ও তারপর Continue অপশনে ক্লিক করুন।
  • এবার একটি অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম আসবে। সেখানে আপনার সম্বন্ধে যা যা তথ্য চাইবে সব দিয়ে ভর্তি করুন।
  • তারপর পাসপোর্ট সাইজ ফটো সহ স্ক্যান করে রাখা ডকুমেন্ট গুলি ভালোভাবে আপলোড করুন। সবশেষে Submit অপশনে ক্লিক করুন।
  • একেবারে শেষে আপনার এই অ্যাপ্লিকেশনের একটি কপি প্রিন্ট আউট হিসেবে বের করুন। পরবর্তী কালে প্রিন্ট আউট টি কাজে লাগবে।
  • আবেদন করার ৬০ দিনের মধ্যে নিকটবর্তী এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জে গিয়ে প্রিন্ট আউট করে রাখা অ্যাপ্লিকেশনটি জমা দিতে হবে। মাথায় রাখবেন ৬০ দিন পেরিয়ে গেলে কিন্তু এই অ্যাপ্লিকেশন ইনভ্যালিড বা বাতিল হয়ে যাবে।
  • এমপ্লয়মেন্ট এক্সচেঞ্জে গিয়ে আপনি অ্যাপ্লিকেশনের প্রিন্ট আউট জমা দেওয়ার পর আপনাকে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দেওয়া হবে। এটা আপনার নথিভুক্ত ফোন নম্বরে আসবে।

২০২৩-২৪ বর্ষের যুবশ্রী প্রকল্পের নতুন তালিকা (List) ছাড়া হয়েছে, সেখানে আপনার নাম আছে কিনা নিম্নলিখিত উপায়ে জেনে নিন-

  1. প্রথমে Employment Bank অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যান।
  2. এবার View Your Name Under Employment Bank And Yuvasree এই লেখাটিতে ক্লিক করুন।
  3. এরপর Temporary EB নম্বর বসান। মাথায় রাখবেন সর্বপ্রথম ফর্ম ফিলাপ করার সময় EB নম্বর দেয়।
  4. সবশেষে Submit অপশনে ক্লিক করে নিজের নাম নথিভুক্ত হয়েছে কিনা দেখতে পারবেন। ওখানেই জেনে যাবেন কত নম্বর ফর্ম সাবমিট করতে হবে।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment