বাজারে দবদবা রাখতে ডুয়েল চ্যানেল ABS, ভয়েস কমান্ড ফিচার নিয়ে লঞ্চ হলো TVS Apache RTR 160 4V

ইয়ংস্টারদের মধ্যে সবথেকে পছন্দের বাইক হল TVS Apache RTR 160 4V ভারতীয় বাজারে 160 সিসির বাইক গুলোর মধ্যে সবথেকে বেশি বিক্রি TVS Apache. দারুন পারফরম্যান্স এবং লুকিং এর দিক থেকে বিগত কয়েক বছর ধরে ইয়ংস্টারদের মধ্যে বিশাল জায়গা গড়ে তুলেছে বাইকটি । আজকেই TVS তাদের নতুন ভার্সনের অ্যাপাচি লঞ্চ করেছে। এক্স শোরুমে বাইকটির দাম শুরু হচ্ছে ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা থেকে।

Apache RTR 160 4V বাইকটিতে ডুয়েল চ্যানেল এবিএস আপডেট করা হয়েছে এবং আগের তুলনায় পিছনের ডিসকেস সাইজ বড় রাখা হয়েছে। এর সাথেই ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট ফিচার সহ স্মার্টফোন কানেক্টিভিটি অফার করছে নতুন 2024 Apache RTR 160 4V.

ভারতে লঞ্চ করলো 2024 TVS Apache RTR 160 4V

Apache RTR 160 4V এর ২০২৪ সালের আপডেট টিতে নতুন লাইটিং ব্লু পেইন্ট কালারে পাওয়া যাবে। ইঞ্জিনের কোনরকম পরিবর্তন আনা হয়নি 160 cc সিঙ্গেল সিলিন্ডার এয়ার/অয়েল কুল্ড ফোর ভালভ ইঞ্জিনটি বাইকটিতে শক্তি প্রদান করবে। এই ইঞ্জিনটির মধ্যে সর্বোচ্চ ১৭.৩৫ এইচপি এবং ১৪.৭৩ এনএম টর্ক উৎপাদন করার ক্ষমতা রয়েছে। ফাইভ স্পিড গিয়ার বক্স এর সাথে এই সেগমেন্টের সব থেকে পাওয়ারফুল ইঞ্জিন দেওয়া হয়েছে TVS এর এই নতুন বাইকটিতে।

TVS Apache 160 4V

TVS Apache RTR 160 4V 2024 Features

Apache RTR 160 4V তে পিছনের চাকায় এতদিন পর্যন্ত ছোট সাইজের ডিস্ক ব্যবহার করা হতো, কিন্তু এই আপডেটের পর পিছনের ডিস্কের সাইজ 240 mm রাখা হয়েছে। সুরক্ষার দিকটি খেয়াল রেখে সিঙ্গেল চ্যানেল এবিএস এর পরিবর্তে ডুয়েল চ্যানেল এবিএস দেওয়া হয়েছে। বাইকটিতে আরবান, রেন ও স্পোর্ট এই তিনটি রাইডিং মোড রয়েছে যার ফলে, বাইকটি চালানোর এক আলাদাই অনুভূতি এনে দেবে রাইডারকে। বাইকটির ভারসাম্য ঠিক রাখতে সামনের দিকে টেলিস্কোপিক ফর্ক ও পিছনের দিকে মনসক সাসপেন্স দেওয়া হয়েছে এবং অন্যান্য যেসব ডিজাইন গুলি আগের মতোই একই রয়েছে।

2024 TVS Apache RTR 160 4V বাইকটিতে আধুনিকতার ছোঁয়া আনতে ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট সাপোর্ট যুক্ত করা হয়েছে। কোম্পানির নিজের SmartXonnect সিস্টেমের মাধ্যমে টার্ন-বাই-টার্ন নেভিগেশন, কল ও এসএমএস অ্যালার্ট, ইত্যাদি পাওয়া যাবে। Apache RTR 160 4V তে সর্বোচ্চ গতি পাওয়া যাবে প্রায় ১১৪ কিমি প্রতি ঘন্টায়। টিভিএস তাদের বুকিং চালু করে দিয়েছে , ২০২৪ সালের প্রথম দিক থেকেই বাইকটির ডেলিভারি চালু করা হবে।

50 মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরার নিয়ে Vivo S18 Pro ও Vivo S18 আসছে, সাথে সনির লেন্স

ভারতের মতো এত বড় বাজারে অনেক কোম্পানির বাইক রয়েছে যেখানে Apache RTR 160 4V সবাইকে টেক্কা দেয়ার মত ক্ষমতা রাখে। এই বাইকটির সাথে পাল্লা দেওয়ার জন্য অনেকগুলি বাইক রয়েছে যেগুলি হল Hero Xtreme 160R 4V, Bajaj Pulsar NS160, Bajaj Pulsar N160 ইত্যাদি।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment