জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ | Update Schedule 2023

ভ্রমন প্রিয় মানুষেরা অনেকেই জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এর সম্পর্কে খোঁজ করেন। তাই আমরা সেইসব মানুষের কথা ভেবে জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা নিয়ে একটি বিস্তারিত প্রবন্ধ আপনাদের সামনে তুলে ধরেছি, আশা করি এই প্রবন্ধ থেকে আপনারা জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সম্বন্ধে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়ে যাবেন। আসুন ভালোভাবে দেখে নিন জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী।

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক পরিচালিত রাজধানী শহর ঢাকা থেকে সিলেট পর্যন্ত চলাচলকারী বিলাসবহুল এবং জনপ্রিয় আন্তঃনগর টেন। এই ট্রেনটি প্রতিনিয়ত অসংখ্য যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে সিলেট পর্যন্ত রেল রুটে চলাচল করে। এই রুটে জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ছাড়াও উপবন এক্সপ্রেস, কালনী এক্সপ্রেস,পারবত এক্সপ্রেস ট্রেনগুলি যাত্রীদের পরিবহন করে।

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ১৯৮৬ সালের ১৩ই মে রাষ্ট্রপতি হোসেন মোহাম্মদ এরশাদ এর শাসনকালে সর্বপ্রথম আন্তঃনগর ট্রেন হিসেবে বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করে। এই ট্রেনটি নিয়মিত ঢাকা স্টেশন থেকে সিলেট পর্যন্ত ২৯৮ কিলোমিটার সপ্তাহে ০৬ দিন পরিসেবা দিয়ে থাকে। ট্রেনটি বাংলাদেশের জনপ্রিয় এবং বিলাসবহুল ট্রেন, বহু মানুষ বিভিন্ন কাজের উদ্দেশ্যে ট্রেনটিতে যাতায়াত করেন। তাই আমরা সেই সব যাত্রীদের সুবিধার জন্য জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এর একটি বিস্তারিত তালিকা আপনাদের সামনে তুলে ধরেছি তালিকাটি ভালোভাবে দেখে নেবেন।

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩

আপনারা যারা নিয়মিত ট্রেনে যাতায়াত করেন তাদের অবশ্যই ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে জানা দরকার, কারণ ট্রেনের সঠিক সময়সূচী যদি জানা না থাকে তাহলে আপনাকে হয়তো ট্রেনটি মিস করে দিতে হবে। তাই আমরা জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ নিয়ে একটি তালিকা তৈরি করেছি যা আপনার যাত্রা পথ শুরুর আগে সময়সূচীটি দেখে নিতে পারবেন।

স্টেশনের নামছাড়ায় সময়পৌছানোর সময়ছুটির দিন
ঢাকা টু সিলেট (৭১৭)১২:১৫১৯:০০মঙ্গলবার
সিলেট টু ঢাকা (৭১৮)১১:১৫১৮:২৫বৃহস্পতিবার

নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ 

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা থেকে সিলেট রুটে মঙ্গলবার ছুটি এবং সিলেট থেকে ঢাকা রুটে বৃহস্পতিবার ছুটি।

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া তালিকা

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকা টু সিলেট রুটে চলাচলকারী একটি বিলাসবহুল আন্তঃনগর ট্রেন। প্রতিনিয়ত অসংখ্য মানুষ এই ট্রেনে যাত্রা করেন এবং তাদের অনেকেই ইন্টারনেটে সার্চ করেন জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া সম্পর্কে। এই ট্রেনটি একটি বিলাসবহুল ট্রেন হওয়ায় ট্রেনটির মধ্যে অনেকগুলি শ্রেণি বিভাগ করা আছে যেমন এসি চেয়ার, স্নিগ্ধা, শোভন চেয়ার, এই বিভাগগুলি অনুযায়ী ট্রেনের ভাড়া গুলি আলাদা আলাদা হয়। যাতে করে যাত্রীগণ তাদের পছন্দ অনুযায়ী সিট বুকিং করতে পারেন। এই ট্রেনের ভাড়ার তালিকাটি আমরা নিচে আপনাদের জন্য তুলে ধরেছে।

আসন বিভাগটিকিট মূল্য
শোভন চেয়ার২৯৫ টাকা
প্রথম সিট৩৯৫ টাকা
এসি সিট৬৭৯ টাকা

কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের স্টপেজ

আপনারা এতক্ষণ জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী সম্পর্কে অনেক তথ্য জানতে পারলেন। এবার আপনাদের জানিয়ে দেবো জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের স্টপেজ গুলি, আমরা যারা প্রতিনিয়ত টেনে যাতায়াত করি তারা সকলেই জানি প্রত্যেকটি ট্রেন তার যাত্রা পথে বিভিন্ন স্টেশনে স্টপেজ করে যাতে করে ট্রেনের ভেতরে থাকা যাত্রী অন্য স্টেশনে নামতে পারে এবং স্টেশনের বাইরে থাকা যাত্রী ট্রেনে উঠতে পারে। তাই আমরা জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের স্টপেজ গুলি সুন্দরভাবে একটি তালিকার মধ্যে আপনাদের সামনে তুলে ধরেছে তালিকাটি লক্ষ্য করবেন।

স্টেশন নামঢাকা থেকে (৭১৭)সিলেট থেকে (৭১৮)
বিমান বন্দর১১:৪২১৭:৫৭
আশুগঞ্জ১৩:০১১৬:৩৮
ব্রাহ্মণবাড়িয়া১৩:২০১৬:১৯
আজমপুর১৩:৫২১৫:৫৫
মুকুন্দপুর১৪:১০১৫:৩৮
হরষপুর১৪:২৫১৫:২৫
মনতলা১৪:৩৮১৫:১২
নোয়াপাড়া১৪:৫৫১৪:৪৮
শাহজীবাজার১৫:১০১৪:২৮
শায়েস্তাগঞ্জ১৫:২৭১৪:১৩
শ্রীমঙ্গল১৬:১০১৩:০৩
ভানুগাছ১৬:৩৩১৩:০৮
কুলাউড়া১৭:২৭১২:৩২
মাইজগাঁও১৮:০০১১:৫৫

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সংক্ষিপ্ত বিবরণ

জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাষ্ট্রপতি হোসেন মোহাম্মদ এরশাদের শাসনকালে সর্বপ্রথম আন্তঃনগর ট্রেন হিসেবে বাংলাদেশ যাত্রা শুরু করে। এবং ট্রেনটি উদ্বোধনের পর থেকেই নিয়মিত ঢাকা টু সিলেট পর্যন্ত যাত্রীদের পরিষেবা দিয়ে আসছে ট্রেনটির কিছু বিবরণ আমরা নিচে প্রদান করলাম।

  • জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশের একটি বিলাসবহুল আন্তঃনগর ট্রেন।
  • সর্বপ্রথম ১৯৬৮ সালের ১৩ই মে ট্রেনটি তার যাত্রা শুরু করে।
  • বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চল রেলওয়ে দ্বারা জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি পরিচালিত করা হয়।
  • এই ট্রেনটি ১৪ টি স্টেশনে যাত্রা বিরতি নেয়।
  • ট্রেনটির মধ্যে ঘুমানোর ব্যবস্থা সহ খাবারের এবং বিনোদনের সুবিধা রয়েছে।
  • ট্রেনটির মধ্যে ১৪টি বগি রয়েছে, দুটি গার্ড বগি ,শোভন চেয়ার, খাবার গাড়ি দুটি, একটি স্লিপার, একটি পাওয়ার এবং আটটি শোভন চেয়ার বগি।
  • ট্রেনটি সপ্তাহে ৬ দিন ঢাকা টু সিলেট রুটে যাতায়াত করে।

ট্রেনে চাপার নিয়ম

ট্রেনে চাপার আগে অবশ্যই আমাদের ট্রেনের নিয়ম কানুন গুলি জেনে রাখতে হয়। সেই নিয়মগুলি কি তা জেনে নিন..

  • প্রথমে আপনাদের বলে রাখি টিকিট ছাড়া ট্রেনে ভ্রমণ করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
  • আপনার ট্রেনের টিকিট টি নিজের কাছে যত্ন সহকারে রাখুন যতক্ষণ পর্যন্ত স্টেশন থেকে বেরিয়ে না আসছেন।
  • আপনার মালপত্র আপনার নিজের দায়িত্বেই রাখুন।
  • অযথা ট্রেনের স্টপচেইন টানবেন না।
  • আপনার পরিচিত ব্যক্তি ছাড়া অন্য ব্যক্তির দেওয়া কোনো খাবার খাবেন না।
  • ট্রেন থেকে অযথা উঠানামা করবেন না।
  • ট্রেনের মধ্যে জ্বলনশীল বস্তু নিয়ে উঠবেন না।

উপসংহার

প্রিয় পাঠকগণ আশা করি জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এবং এই ট্রেনের টিকিটের মূল্য নিয়ে প্রবন্ধটি আপনাদের বিস্তারিত তথ্য প্রদান করতে পেরেছে। আপনাদের যদি আজকের প্রবন্ধটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই একটি শেয়ার করতে পারেন এবং যেকোনো ধরনের প্রশ্ন থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমরা শীঘ্রই তার উত্তর দিয়ে দেব।

আপনাদের বলে রাখি বাংলাদেশ যে কোন জায়গায় ভ্রমণের জন্য সবথেকে উপযুক্ত ট্রেন হলো আন্তঃনগর ট্রেন। এই ট্রেন গুলির মধ্যে আধুনিক প্রযুক্তি সহ সব রকম সুবিধা আছে যা আপনার ভ্রমণ যাত্রাকে অসাধারণ গড়ে তুলবে এবং স্টেশনের টিকিট কাটার ঝামেলায় এড়াতে অনলাইনে আপনারা টিকিট বুকিং করে নিতে পারেন, ধন্যবাদ।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment