সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ | টিকিট ও ভাড়ার তালিকা

বন্ধুরা আজকে আমরা আপনাদের সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এবং সুন্দরবন ট্রেনের ভাড়া সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়ে দেবো। সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহর থেকে খুলনা শহরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী একটি আন্তঃনগর ট্রেন। সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশের জনপ্রিয় বিলাসবহুল ট্রেন গুলির মধ্যে একটি। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী মাননীয়া শেখ হাসিনা ১৭ ই আগস্ট ২০২৩ সালে ট্রেনটির প্রথম যাত্রাপথ উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে খুলনা পর্যন্ত রেলপথের দূরত্ব ৪৪৯ কিলোমিটার, এই পথ অতিক্রম করতে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময় লাগে প্রায় ৯ থেকে ১০ ঘন্টা। বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ অরণ্য সুন্দরবন বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট জেলায় অবস্থিত। এই সুন্দরবন অরণ্যের নাম থেকেই সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের নামকরণ করা হয়।

আমরা যেহেতু বেশিরভাগ মানুষ ট্রেনে করে যাত্রা করি, বিভিন্ন কাজের উদ্দেশ্যে অথবা ভ্রমণের জন্য তাই যে কোনো ট্রেনে চাপার আগে সেই ট্রেনের সময়সূচী অবশ্যই ভালোভাবে জানা দরকার। তাই আমরা সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এর একটি বিস্তারিত তালিকা আপনাদের সামনে প্রস্তুত করেছি তালিকাটি মনোযোগ সহকারে দেখে নেবেন।

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩

যে কোনো জায়গায় ভ্রমণের জন্য আমরা বাস, ট্রেন, এরোপ্লেনের ব্যবহার করে থাকি, এগুলোর মধ্যে সবথেকে কম খরচায় এবং আরামদায়ক ভ্রমণের জন্য ট্রেনযাত্রা সবথেকে উপযুক্ত এবং সাধারণ মানুষ ট্রেন যাত্রাকেই বেশি পছন্দ করেন। আসুন জেনে নিন সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এর তালিকা।

রাজধানীর শহর ঢাকা থেকে সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ০৮:১৫ মিনিটে খুলনার দিকে যাত্রা শুরু করে এবং বিকেল ০৫:৪০ মিনিটে খুলনা স্টেশনে পৌঁছায়। একইভাবে ট্রেনটি খুলনা স্টেশন থেকে রাত্রি ১০:১৫ মিনিটে তার গন্তব্য ঢাকার দিকে রওনা দেয় এবং সকাল ০৭:০০ মিনিটে ঢাকা স্টেশনে পৌঁছায়।

স্টেশনের নামছাড়ার সময়পৌঁছানোর সময়ছুটির দিন
ঢাকা টু খুলনা সকাল ০৮:১৫বিকেল ০৫:৪০বুধবার
খুলনা টু ঢাকারাত্রি ১০:১৫সকাল ০৭:০০শুক্রবার

উপরে দেওয়া সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী আমরা বাংলাদেশর অফিসিয়াল রেলওয়ে ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করেছি। তালিকাটি বাংলাদেশ রেলওয়ে ৫২ তম সময়সূচী অনুসারে দেওয়া হয়েছে যেটি ১০ই জানুয়ারি ২০২০ সালের চালু হয়েছিল। আপনারা সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচি বাংলাদেশের রেলওয়ে ওয়েবসাইট থেকে যাচাই করে নিতে পারেন।

চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের বন্ধের দিন

ঢাকা থেকে খুলনা পর্যন্ত চলাচলকারী সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি সপ্তাহের ০৬ দিন চলাচল করে এবং একটি দিন ট্রেনটি তার যাত্রা বন্ধ রাখে। ঢাকা থেকে খুলনা রুটে ট্রেনটি বুধবার দিন বন্ধ থাকে এবং খুলনা থেকে ঢাকা রুটে ট্রেনটি শুক্রবার দিন বন্ধ থাকে।

ট্রেনের নম্বরছুটির দিন
ঢাকা টু খুলনা (৭২৫ )বুধবার
খুলনা টু ঢাকা (৭২৬)শুক্রবার 

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া তালিকা

যে কোনো ট্রেনে চাপার আগে সেই ট্রেনের ভাড়া কত তা অবশ্যই সকলের জানা দরকার। আপনারা যদি ঢাকা থেকে খুলনার উদ্দেশ্যে ভ্রমণ করতে চান তাহলে অবশ্যই সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া সম্বন্ধে জানা জরুরী। সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি ১২টি বগি যুক্ত একটি ট্রেন এবং এই ট্রেনের মধ্যে অনেকগুলি শ্রেণীবিন্যাস আছে যেমন স্নিগ্ধা, শোভন চেয়ার, এসি চেয়ার, এই শ্রেণীবিন্যাস অনুযায়ী টিকিটের ভাড়া গুলি আলাদা আলাদা হয়। সামর্থ্য অনুযায়ী যার যে শ্রেণী পছন্দ তার টিকিট কাটতে পারেন, সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া তালিকাটি আমরা নিচে দিয়ে দিলাম তালিকাটি ভালোভাবে দেখে নিন।

স্টেশনের নামশোভনশোভন চেয়ারপ্রথম সিটএসি সিট
জয়দেবপুর৩৫ টাকা৪০ টাকা৮০ টাকা৯০ টাকা
মির্জাপুর৬৫ টাকা৮০ টাকা১০৫ টাকা১৩০ টাকা
টাঙ্গাইল৯০ টাকা১০৫ টাকা১৪০ টাকা১৭৫ টাকা
বিবি পূর্ব১০৫ টাকা১২৫ টাকা১৬৫ টাকা২১০ টাকা
জামতলী১৮০ টাকা২১৫ টাকা২৮৫ টাকা৩৫৫ টাকা
উল্লাপাড়া১৯০ টাকা২২৫ টাকা৩০০ টাকা৩৭৫ টাকা
বড়াল ব্রীজ২০৫ টাকা২৪৫ টাকা৩২৫ টাকা ৩৭৫ টাকা
চাটমোহর২১০ টাকা২৫০ টাকা৩৩৫ টাকা৪০৫ টাকা
ঈশ্বরদী২২৫ টাকা২২৫ টাকা২৭০ টাকা৪২৫ টাকা
ভেড়ামারা২৬৫ টাকা২৭০ টাকা৩৩৫ টাকা৪৫০ টাকা
মিরপুর২৭০ টাকা৩২০ টাকা৪২৫ টাকা৫৩০ টাকা
পোড়াদহ২৮০ টাকা৩২৫ টাকা৪৩৫ টাকা৫৪০ টাকা
আলমডাঙ্গা২৯০ টাকা৩৩৫ টাকা৪৪৫ টাকা৫৫৫ টাকা
চুয়াডাঙ্গা৩০০ টাকা৩৪৫ টাকা৪৬০ টাকা৫৭৫ টাকা
কোট চাঁদপুর৩৩৫ টাকা৩৬০ টাকা৪৮০ টাকা৬০০ টাকা
যশোর৩৫০ টাকা৪২০ টাকা৫৬০ টাকা৭০০ টাকা 
খুলনা৩৯০ টাকা৪৬৫ টাকা৬২০ টাকা৭৭৫ টাকা 

পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ 

সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন

ঢাকা থেকে খুলনা পর্যন্ত রেলপথের দূরত্ব যেহেতু অনেকটা তাই সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি তার যাত্রাপথে অনেকগুলি স্টেশনে বিরতি নেয়। যাতে করে অন্যান্য স্টেশনে থাকা মানুষজন উঠানামা করতে পারেন। সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশনগুলি সময়ের সাথে পরিবর্তিত হতে পারে, আমরা আপনাদের সুবিধার জন্য সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশনগুলোর একটি তালিকা আপনাদের সামনে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছি তালিকাটি দেখে নেবেন।

বিরতি স্টেশনের নামখুলনা থেকে (৭২৫ )ঢাকা থেকে (৭২৬)
দৌলতপুর২২:২৫ ১৭ঃ১৯ 
নওয়াপাড়া২২:৪৯ ১৬:৫২ 
যশোর২৩:২০ ১৬:২০ 
কোট চাঁদপুর২৪:০০ ১৫:৪২ 
চুয়াডাঙ্গা০০:৫৩ ১৪:৪১ 
আলমডাঙ্গা০১:১৩ ১৪:২০ 
পোড়াদহ০১:৩২  ১৪:০১ 
ভেড়ামারা০১:৫৩ ১৩:৪০ 
ঈশ্বরদী০২:১৫ ১৩:০০ 
চাটমোহর০৩:০০ ১২:২৪ 
বড়াল ব্রিজ০৩:১৫ ১২:০৮ 
উল্লাপাড়া০৩:৩৬ ১১:৪৬ 
জামতৈল০৩:৫১ ১১:৩২ 
শহীদ এম মনসুর আলী০৪:০০ ১১:২১ 
বঙ্গবন্ধু সেতু পর্ব০৪:৪২ ১০:৪৫ 
জয়দেবপুর ০৫:৫৭ ০৯:১২ 
বিমানবন্দর০৬:২৫ ০৮:৪২ 

ট্রেনে চাপার নিয়ম

ট্রেনে চাপার আগে অবশ্যই আমাদের ট্রেনের নিয়ম কানুন গুলি জেনে রাখতে হয়। সেই নিয়মগুলি কি তা জেনে নিন..

  • প্রথমে আপনাদের বলে রাখি টিকিট ছাড়া ট্রেনে ভ্রমণ করা দণ্ডনীয় অপরাধ।
  • আপনার ট্রেনের টিকিট টি নিজের কাছে যত্ন সহকারে রাখুন যতক্ষণ পর্যন্ত স্টেশন থেকে বেরিয়ে না আসছেন।
  • আপনার মালপত্র আপনার নিজের দায়িত্বেই রাখুন।
  • অযথা ট্রেনের স্টপচেইন টানবেন না।
  • আপনার পরিচিত ব্যক্তি ছাড়া অন্য ব্যক্তির দেওয়া কোনো খাবার খাবেন না।
  • ট্রেন থেকে অযথা উঠানামা করবেন না।
  • ট্রেনের মধ্যে জ্বলনশীল বস্তু নিয়ে উঠবেন না।

শেষ কথা

ট্রেনে করে ভ্রমণ করতে আমরা সকলেই পছন্দ করি তাই যে কোন ট্রেনে চাপার আগে সেই ট্রেনে ভাড়া এবং সময়সূচী সম্পর্কে অবশ্যই একটা ধারণা থাকা জরুরি। তাই আমরা আজকে আপনাদের সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৩ এবং সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া নিয়ে একটি বিস্তারিত তথ্য আপনাদের সামনে দিয়েছি যাতে করে আপনাদের ভ্রমণে কোনরকম সমস্যা না হয়।

আজকের আমাদের প্রবন্ধটি আপনাদের কাছে যদি গুরুত্বপূর্ণ মনে হয় অবশ্যই বন্ধুদের সাথে অথবা আত্মীয়র সাথে শেয়ার করতে পারেন যারা সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে পড়ে যায় ভ্রমণ করতে চায়। আপনাদের পোস্টটির মধ্যে কোনো জায়গায় সমস্যা থাকলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমরা আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দেব। আমরা আপনাদের যাত্রা শুভ হোক এটাই কামনা করি। ধন্যবাদ।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment