যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প ২০২৩ : আবেদন নিয়ে রাজ্য সরকারের নতুন চমক

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প : রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্র সরকার নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য এবং মানুষের জীবনযাত্রা সুন্দর করার জন্য বিভিন্ন ধরনের স্কিম চালু করে। আজকে আপনারা জানতে পারবেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প নামে যে প্রকল্পটি চালু হয়েছে তার সমস্ত খুঁটিনাটি বিষয়গুলি। এই প্রবন্ধের মাধ্যমে আপনারা যুবশ্রী অর্পণ স্কিম কি এই স্কিমের সুবিধা, উদ্দেশ্য ,বৈশিষ্ট্য ,যোগ্যতা, প্রয়োজনীয় নথিপত্র এবং আবেদন পদ্ধতি ইত্যাদি। আপনারা যদি এই প্রকল্পটি সম্বন্ধে জানতে আগ্রহী হন তাহলে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প ২০২৩ (Yuvashree Arpon Prokolpo 2023)

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২০১৯ সালের ৬মার্চ যুবশ্রী অর্পণ যোজনা নামে এই প্রকল্পটি চালু করেছিলেন। যাতে করে যুব সমাজের মধ্যে উন্নতি করা যায়। এই প্রকল্পের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার নতুন উদ্যোক্তাদের ব্যাবসা স্থাপনের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে যুবকদের ১ লক্ষ টাকা করে ৫০০০০ যুবক যুবতীকে আর্থিকভাবে সহায়তা করবে। ক্ষুদ্র এবং মাঝারি কোম্পানি গুলি এই টাকা খরচ করবে, এই প্রকল্পের মাধ্যমে উদ্যোক্তাদের সেইরকম পরিকাঠামো দেওয়া হবে যেটা চাকরি তৈরিতে সাহায্য করবে। এর ফলে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে এবং রাজ্যের অর্থনৈতিক পরিকাঠামো বৃদ্ধি পাবে।

যুবশ্রী অর্পণ যোজনার সংক্ষিপ্ত বিবরণ

প্রকল্পের নাম Yuvashree Arpon Prokolpo
কার দ্বারা পরিচালিত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার
উপভোক্তা রাজ্যের যুবসমাজ
উদ্দেশ্য আর্থিক সহয়তা প্রদান
উপভোক্তা সংখ্যা ৫০০০০
বাজেট ৫০০ কোটি
আর্থিক সহয়তা ১ লক্ষ টাকা
উদ্বোধন২০১৯ সালের ৬ই মার্চ
অফিসিয়াল ওয়েবসাইটApply Now

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পের উদ্দেশ্য

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হলো উদ্যোক্তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করে যুব সমাজের মধ্যে ব্যাবসা নিয়ে উন্নীত করা। এই উদ্যোক্তাদের প্রচার রাজ্যের মধ্যে চাকরির ব্যবস্থা তৈরি করবে, যাতে করে রাজ্যের অর্থনৈতিক উন্নতিতে সাহায্য হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে আরও বেশি সংখ্যক যুবক ব্যাবসায়ী আরো আকৃষ্ট হবে, যার ফলস্বরূপ রাজ্যে কর্মসংস্থান তৈরি হবে এবং রাজ্যের বেকারত্বের হার অনেকটা কমে যাবে।

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পের বৈশিষ্ট্য গুলি কি কি

প্রকল্পের লক্ষ্য : পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তত্ত্বাবধানে বিশেষ করে যুবকদের ব্যবসা করার ইছাকে বাস্তবায়ন করার জন্য যুবশ্রী অর্পণ যোজনা নামে প্রকল্পটি চালু হয়েছে। এখানে রাজ্য সরকার যুবকদের ব্যবসার জন্য আর্থিকভাবে সহায়তা দেবে।

এই স্কিমের উপভোক্তা : রাজ্য সরকার এই প্রকল্পের জন্য কারা উপযোগী হবে তার একটি নির্দিষ্ট যোগ্যতা নির্ধারণ করেছেন, এর মাধ্যমে রাজ্যের ৫০ হাজার যুবক যুবতী এই প্রকল্প থেকে উপকৃত হবে।

স্কিমের সহায়তা : এই প্রকল্পের মাধ্যমে ছোট এবং মাঝারি আকারে কোম্পানিগুলিকে আর্থিকভাবে সহায়তা দেয়া হবে এবং প্রত্যেক যুবক-যুবতীকে ১ লাখ টাকা দেয়া হবে যাতে করে তারা নিজেদের একটি ব্যবসা শুরু করতে পারে।

কর্মসংস্থান পরিস্থিতি ও উদ্যোগ : রাজ্য সরকার এই প্রকল্পটির পরিকল্পনা করেছেন তার কারণ হলো দিন দিন রাজ্যে বেকারত্বের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। এই প্রকল্পটি রাজ্যের যুবক যুবতীদের দারুনভাবে উপকৃত করবে বলে রাজ্য সরকার আশা করেছে।

West Bengal Student internship Scheme Apply Now

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পের সুবিধা

  • ২০১৯ সালের ৬ই মার্চ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পটি চালু হয়েছিল।
  • যুব সমাজের মধ্যে ব্যবসার ঝোক বাড়াতে রাজ্য সরকার এই পদক্ষেপটি নেয়।
  • এই প্রকল্পে আবেদনকারীদের ১ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা হয়েছে।
  • ৫০ হাজার যুবক যুবতী এই প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবে।
  • এই যোজনায় ক্ষুদ্র অতি ক্ষুদ্র এবং মাঝারি কোম্পানিগুলির দ্বারা তহবিল সরবরাহ করা হবে।
  • যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প এমন একটি কর্মসংস্থান তৈরি করতে সাহায্য করবে যাতে করে রাজ্যের অর্থনৈতিক দিক অনেক উন্নতি হবে।
  • রাজ্য সরকার এই প্রকল্পের জন্য একটি বিশেষ পোটাল চালু করেছে যাতে আবেদনকারীরা সুবিধা পেতে পারে।
  • এই প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধা ভোগ কারীরা সরাসরি তাদের ব্যাংকের একাউন্টে টাকাটি পাবেন।
  • রাজ্যের আশা এই প্রকল্পের মাধ্যমে বেকারত্বের হার অনেকটা কমবে।
  • ,রাজ্য সরকার আবেদনকারীদের জন্য বিশেষভাবে ব্যবসা সম্পর্কে ধারণার একটি প্রশিক্ষণ দেবে।
  • পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার যুবশ্রী অর্পণ যোজনাটি বাস্তবায়ন করার জন্য ৫০০ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ করেছে।

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প পাওয়ার জন্য যোগ্যতা

  • আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের একজন স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স ১৮ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • আবেদনকারীর কোনো অপরাধের রেকর্ড থাকা যাবে না।
  • পরিবারের বার্ষিক আয় লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে থাকলে এই প্রকল্পের জন্য আপনাকে নির্বাচিত করা হবে।
  • আবেদনকারীকে রাজ্য সরকার অথবা কেন্দ্র সরকারের এই ধরনের প্রকল্পের সাথে যুক্ত থাকা যাবে না।
  • যেসব যুবক-যুবতীরা নতুন ব্যবসা খুলতে আগ্রহী এবং নিজের ও অন্যের জন্য কর্মসংস্থান তৈরির নতুন ধারণা রয়েছে তারা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  • এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্কে নাম থাকলে এবং আইটিআই অথবা এই ধরনের প্রযুক্তিগত শিক্ষার ডিগ্রী থাকলে এই স্কিমের জন্য অগ্রাধিকার পাবেন।
  • শিক্ষিত প্রতিষ্ঠান থেকে কারিগরি ডিগ্রী থাকা যুবক যুবতীরা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারেন।
  • সরকারি চাকরি প্রার্থী যুবক যুবতী এই স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারবেন না।
Joy Bangla Penson Scheme

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পে আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় নথিপত্র

এই প্রকল্পের জন্য কি কি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দরকার সেগুলি নিম্নে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো-

  • স্থায়ী বাসিন্দার সার্টিফিকেট।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমাণপত্র।
  • উচ্চ মাধ্যমিকের মার্কশিটের কপি।
  • পরিচয় পত্র ( আধার কার্ড, প্যান কার্ড, ভোটার কার্ড ইত্যাদি)
  • ব্যাংকের পাসবুক এর জেরক্স।
  • মোবাইল নাম্বার।

যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প আবেদন করার পদ্ধতি

  • যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পে আবেদন করার জন্য নিচের পদ্ধতিগুলি আপনাকে সঠিকভাবে অনুসরণ করতে হবে-
  • প্রথমে ওয়েস্ট বেঙ্গল এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে যাবেন।
যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প
  • প্রথমে হোম পেজ খুলবে।
  • হোম পেজে আপনাকে নতুন তালিকাভুক্ত চাকরি প্রার্থীর উপর ক্লিক করতে হবে।
  • আপনার সামনে একটি সর্তাবলী পেজ আসবে।
  • শর্তাবলী প্রযোজ্যগুলি আপনাকে খুব ভালোভাবে পড়তে হবে।
  • এরপর আপনাকে ঘোষণাটির উপর ঠিক চিহ্ন দিতে হবে এবং স্বীকার করুন চালিয়ে যান লেখাটির উপর ক্লিক করতে হবে।
যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্প
  • আবেদন পত্রটি আপনার সামনে উপস্থিত হবে।

আবেদন করতে আপনাকে নিচে দেয়া তথ্য গুলি পূরণ করতে হবে- (আবেদন করুন)

  • ব্যক্তিগত তথ্য
  • যোগাযোগ করার তথ্য
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা
  • আপনার ভাষা
  • আপনার শারীরিক মাপ
  • অভিজ্ঞতার বিস্তারিত তথ্য
  • অন্যান্য তথ্য
  • এরপরে আপনাকে আপনার ছবি এবং সিভি আপলোড করতে হবে।
  • এরপর ঘোষণাটির উপর ঠিক চিহ্ন দিতে হবে।
  • বার সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  • এইভাবে আপনি পদ্ধতিগুলি অনুসরণ করলে পশ্চিমবঙ্গ যুবশ্রী অর্পণ প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

যুবশ্রী প্রকল্পের টাকা কিভাবে পাবেন

যে সমস্ত আবেদনকারী নাম যুবশ্রী অর্পণ স্কিমের তালিকায় নাম রয়েছে তাদের ফোন নাম্বার এবং ইমেইল আইডির মাধ্যমে জানানো হবে। প্রথমে ১ লক্ষ প্রার্থীকে জানানো হবে তবে খেয়াল রাখতে হবে এই প্রকল্পের টাকা পাওয়ার জন্য একটি রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে ,কারণ এই অ্যাকাউন্টটি সরাসরি যুবশ্রী প্রকল্পের ভাতা দেওয়ার জন্য ব্যবহার করা হবে।

I'm Suhana Khan, I'am a professional blogger and a teacher. I am happy to share new information and it's proud for me. I have 3 years experience of blogging.

Leave a Comment